আমার কথা-৯

আমার কথা-৯

Others
বাবা বলতেন যারা নিজের পদবী নিয়ে বেশী বড়াই করে তারা অধীনস্থদের অমুক(নাম) সাহেব বলে সম্বোধন করেন। তারা ইংরেজি স্যার শব্দটি শুনতে ভালবাসেন। এসব লোক খুব দাম্ভিক ও একরোখা হয়ে থাকে। আর গুণী মানুষরা সম্বোধনের তোয়াক্কা করেন না আর তাই তারা মানুষের কাছ থেকে প্রকৃত সম্মান পান। আর স্যারদের বলি শোনেন, সেক্রেটারি পদবী দেখে আবার অধীনস্থ ভাববেন না, কারণ এই পদ এর মান সব ক্ষেত্রে এক নয়! এমন সেক্রেটারিও আছে যাকে আপনি স্যার ডাকবেন। গলার দড়ি আর এই শব্দ ইংরেজরা আপনার মজ্জায় ঢুকিয়ে দিয়ে গেছে। ঠিক যেমন চায়ের সাথে দুধ মিশিয়ে তার গুণাগুণ নষ্ট করে দিয়ে গেছে তেমনি। মঙ্গল হোক স্যার। চঞ্চল ০২/০৮/২০১৭
Read More
আমার কথা – ৮

আমার কথা – ৮

Others
" ঈদ মোবারাক " কোন কোন সম্পর্ক টিকে থাকে ফেসবুকে যোগাযোগের মাধ্যমে, কোনটা অন্য কোন সোশ্যাল মিডিয়া কিংবা কোন অ্যাপ এ, কোন সম্পর্ক বছরে দুইবার বাড়ী যাওয়ায় এক পলকে একটু দেখা, কোনটি যুগ যুগান্তরে শুধু মনের কোনে , কোনটি স্মৃতিতে, কোনটি ভাললাগায়, কোনটি ভালবাসায়। কোনটি সেল ফোনের কন্টাক্ট লিস্ট এ। তাই বলে কোনটি কি ফেলে দেয়া বা অবহেলা করার জন্য? না প্রতিটি সম্পর্কের রয়েছে আলাদা পরিচয় বন্ধুনামে, বাবা, মা, ভাই, বোন, ছোট ভাই, ছোট বোন, বড় ভাই, বড় বোন, ভাবী, মামা, চাচা , খালা, নানী ইত্যাদি ইত্যাদি বিভিন্ন সম্বোধনে একেকটা নিবিড় সম্পর্ক। হয়ত কারও সাথে দেখা হয়নি বহুকাল, হয়ত আমি তাদের যেভাবে ফিল করি তারা করেনা তাতে কি যায় আসে ! আমি তো আমার দৃষ্টিকোণ দিয়েই চিন্তা করবো নাকি? অন্তত বছরে চারবার আমার সেলফোনের কন্টাক্ট লিস্ট এ যারা আছে তাদের…
Read More
আমার কথা-৭

আমার কথা-৭

Others
ঠিক ঈদ উপলক্ষ্যে নতুন জামা কেনার অভ্যাস ছেড়েছি সেই কবে! না কোন দীনতা কিংবা কোন সংকল্প নয়। কিন্তু মানুষের জীবনে কিছু পরিপক্কতা কিছু বুঝ এমনিতেই চলে আসে। একসময় মানে এইচএসসি পর্যন্ত বলতে  পারেন প্রতি সন্ধ্যায় দুধ কলা দিয়ে ভাত না খেলে আমার চলতইনা। সেই আমি এমনকি ফলমূলও এখন খুব কম খাই! কেন জানি ইচ্ছে করেনা। পৃথিবীতে প্রতিটি জিনিসের একটি সময় আছে আবার সময়ের সাথে সাথে স্থানান্তরিত হয় অন্য শরীরে, অন্য অস্তিত্বে। কখনো মানুষ আপন অস্তিত্ব  আপনজনের মাঝে বণ্টন করে দেয়, আর তখন তার সমস্ত সুখ তাদের মাঝেই নিহিত হয়। ঠিক যেমনটি একজন বাবা নিজে নতুন জুতো না কিনে সন্তানকে দিয়ে আনন্দ পায়। ঠিক যেমন সন্তান কিছুতে ভাল করলে তার মনে যে আনন্দটা হয়। আমার প্রতিটি ত্যাগের পিছনেও অনেক না বলা কারণ আছে। একটু ভিন্ন প্রসঙ্গে বলি; দানের ক্ষেত্রে রাখঢাক এবং…
Read More
আমার কথা-৬

আমার কথা-৬

Others, Uncategorized
শ্রেণী কক্ষের শেষ বেঞ্চটিতে বসেছেন জনাব? যদি বসে থাকেন অনুভুতিটা কেমন? ভাল নিশ্চয় !  একটু আধটু শয়তানি বা কথা বললেও শিক্ষকের নজরে সহজে আসেনা! তবে সবচেয়ে বড় মজা পুরো কক্ষটির সবাইকে দেখা যায় খুব ভালভাবে। ঠিক যেমন আকাশের নির্দিষ্ট উপর থেকে একটি এলাকাকে, পরিচিত জনদের খুব ভাল ভাবে দেখা যায়। আমার মতে সামনে যারা থাকে তারা অনেক জ্ঞানী, গুণী , সম্মানীয় হলেও তারা পিছনে যারা আছেন তাদের থেকে কিছু ক্ষেত্রে বঞ্চিত! কেমন পুতুলের মত থাকতে হয়, নড়াচড়া , কথাবলা সব দেখেশুনে করতে হয় সে এক বড় বিড়ম্বনা! তবে পিছনের সারির অনেকেই স্বপ্ন দেখেন সামনে যাওয়ার , সে মর্মে যারপরনাই চেষ্টাও চালিয়ে যান, কখনো সফলও হন। কিন্তু  সেই সামনে গিয়ে আবার পিছনের কথা মনে পড়ে হয়ত মনে হয় ফেলে আসা সময়টা কতইনা ভাল ছিল। এ যে বড় জ্বালা , মানুষ যত…
Read More
আমার কথা- ৫

আমার কথা- ৫

Others
জীবনে যে মানুষগুলো অনেক সংগ্রাম করে নিজের একটা অবস্থান তৈরি করে তাদের বাইরের আবরণটা শক্ত হলেও ভিতরে থাকে ভরপুর আবেগ! আর যাদের মধ্যে সৃজনশীলতা কিংবা সংস্কৃতি প্রেম আছে তাদের মাঝে আবেগ থাকবে এটাই স্বাভাবিক। কিন্তু এই মানুষগুলো জীবনে বহুবার অন্য কেউ কর্তৃক ভুল বোঝাবোঝির শিকার হয়। প্রতিটি মানুষের জীবনে আপন কিছু দর্শন থাকে। প্রতিটি মানুষের আলাদা স্বকীয়তা থাকে এটাই স্বাভাবিক।তবে এ ধরণের মানুষরা একটু বেশী মাত্রায় কেয়ারিং, শেয়ারিং এবং যোগাযোগ প্রেমী হয়। এদের কাছে প্রতিটি সম্পর্কের একটি আলাদা অবস্থান বা আলাদা মুল্য থাকে। কিন্তু বাস্তবতা এই এসব মানুষরা যাদের পছন্দ করছে, যাদের কেয়ার করছে তারা এসব মানুষকে থোরাই কেয়ার করে। নির্ভর করে অপর প্রান্তের ব্যক্তিদের নিজস্ব জীবন, তাদের মানসিকতার উপর। হতে পারে তারা নিজেকে গুটিয়ে রাখে, হতে পারে তারা অতি বাস্তববাদী , হতে পারে তারা এহেন মানুষকে কোন গুরুত্ব দিচ্ছেনা।…
Read More

আমার কথা-৪

Others
আপনার আশপাশে এমন অনেক কিছু,  এমন অনেক মানুষ আছে যাদের আকার ইঙ্গিত, কর্মকান্ড আপনাকে বহুবার নিরুৎসাহিত করবে। তারা আপনাকে কারণে অকারণে হেয় করবে যেন আপনি মানসিকভাবে ভেঙে পরেন! একই পরিমণ্ডলে কর্মরত জনগোষ্ঠী দেখবেন জাতি-ধর্ম-বর্ণ-কর্ম নির্বিশেষে বহুভাগে বিভক্ত যার কোনটাতেই প্রাথমিক প্রবেশাধিকার পাবেন না। ছোটছোট যেই দল গলিতে তারা বিভক্ত তার মাঝেও উপদল, যেখানে আরও নির্দিষ্টতা থাকে যেমনঃ  ওমুক ভার্সিটি, অমুক জেলা, অমুক উপজেলা!  আপনি বেচারা কোথায় যাবেন! আপনার স্থান কোথায়। হয়ত দেখবেন আপনার নিজের এলাকার পরিচিত একজন গায়ে নীল রঙ মেখে নীল দলে অবস্থান করছে, আর সে কোন ভাবেই আপনার কোন উদ্যোগকে উৎসাহতো দিচ্ছেইনা বরং আপনাকে চরম ভাবে উপেক্ষা করছে। এমনকি হাজার চেষ্টা করেও আপনি তার পক্ষ থেকে কোন সারা পাচ্ছেন না। এটাই স্বাভাবিক,  আপনাকে মেনে নিতে হবে যে উনি এখন নীল দলের আর আপনি ইচ্ছা করলেই নীল দলে যেতে…
Read More